Tags » Bangla Choti

সোনালী ম্যামbangla choti

সুখানুভূতি কাহিনী – লেখক কলেজে তখন সবে ভর্তি হয়েছি ফার্স্ট ইয়ারে। যখন আমার বারো বছর বয়স, হঠাৎই মা এই পৃথিবী ছেড়ে চলে গেলেন।bangla choti বাবাকেও কাছে পাই না। চাকরীর সূত্রে বাবা এখানে থাকেন না। তাকে মাঝে মাঝে বিদেশেও যেতে হয়। বাড়ীতে একা থেকে মন টেকে না। সঞ্জু, ফিরোজ, ওরা সব আসে, আমার বন্ধুরা। গল্প করি, ক্যারাম খেলি, আড্ডা মারি। কিন্তু তাহলেও কিসের যেন একটা অভাব বোধ করি। আমার বন্ধুরা সব গার্ল ফ্রেন্ড 7 more words

Bangla Choti

আমার প্রথম ধনের স্পর্শ bangla choti

আমি সোনালী, বাবা মায়ের একমাত্র মেয়ে। bangla choti আমরা মোটামুটি বড়লোক পর্যায়ে বলা চলে, গ্রামের বাড়িতে জায়গা আছে আর শহরে আছে নিজেদের বাড়ি, সেখান থেকে ভাড়া আসে আর আমার বাস ওইখানে। আমি একটু মোটা সেই সাথে আমার বুক আর পাছা সেই রকম মোটা, বর্তমানে আমার সাইজ 38D-34-40। আগে ছিল 36D। কিভাবে 7 more words

Bangla Choti

টিপু দুলাভাই আর ছোট দুলাভাই bangla choti

সারা দিন জার্নি করে দার্জিলিঙ ছোট আপার বাসায় এসে পৌছে দেখি এলাহি কারবার তার শশুর শাশুড়ী সহ আরো পাচ-ছয় জন মেহমান এসেছে গতকাল।তার উপর আমরা মানে বাবা মা আমি আর রেখা। রেখা হচ্ছে আমার বান্ধবী আমাদের bangla choti পাড়াতেই বাসা। আমাদের পরিবারের সাথে তাদের পরিবারের গভীর সম্পর্ক।রেখা আমার সাথে একই ক্লাশে পড়ে তবে বয়সে আমার থেকে দুই এক বছরের বড় হবে। এক এক ক্লাশে দুই বছরকরে করে থেকে এখন ১০ম ক্লাশেএসে বয়স প্রায় ২২ হবে। আমারো একই দশা। বারদুয়েক মেট্রিক ফেল করেছি সেটাতো আগেই বলেছি।ওদিকে রেখা আমার থেকে একধাপ এগিয়ে- ছেলেদের সাথে ঢলাঢলি বুক টিপাটিপি এমনকি শোওয়ারও অভিঞ্জতা রেখার আছে। সে তার এসব অভীঞ্জতার কথা আমাকে বলে। আর আমাদের ছোট দুলাভাইও একটা লুচ্চা। bangla choti মেয়েদের দিকে সব সময় লোভাতুর দৃষ্টিতে তাকায়। আমাদের বাসায় যতবার আসে ততবারই আমার উপর চান্স নিতে চায় আমি চান্স দেই নাই। তবে রেখার উপর একটু আধটু চান্স নিয়েছে। আপা-দুলাভাই আমাদের বাসায় আসলে রেখা তাদেরকে দেখতে আসে। দুলাভাই হিসাবে তার সাথে ঠাট্টা তামাশা করে। bangla choti একবার দুলাভাইয়ের মুখে কাচাহলুদের রং মাখিয়ে পালিয়েছিল। দুলাভাইও সুযোগের অপেক্ষায় ছিল। রেখাকে একা পেয়ে তার বুক দুটো আচ্চামত টিপে দিয়েছিল।পরে রেখা আমাকে এসব কথা বলেছে। আমাকে 7 more words

Bangla Choti

হেঁসে হেঁসে পুরু মিডিয়া জয় করার ট্রেনিং

বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে গেলে মন খারাপ হয়ে যায়। কেন হবেনা, তারা তাদের প্রেমিকার কথা বলে। কেও নতুন নতুন বান্ধবির কথা বলে । কোন মেয়ে প্রপোজ করল সেইসব বলে। ফেসবুকে বসে মেয়ে পটানোর গল্প বলে। কে কাকে কত স্টাইলে করে এসব গল্প বলে। রিক্সায় বসে টিপাটিপির কথা বলতেও ভুলেনা। আরও কত কথা! এসব শুনে নিজেকে বড় একা মনে হয়। আমি এখনো একটা মেয়ে জোটাতে পারলাম না। অনেকে কত কি করে সেঞ্চুরি করেফেলেছে। এভাবে আর কতকাল চটি৬৯ এ গল্প পরে একা একা হাত মেরে অভিশাপ বয়ে বেড়াব?? আর কতকাল?? তাই সিদ্দান্ত নিলাম যে করেই হউক এক জনকে পটাতে হবেই, তার জন্য দরকার একজন মডেল মার্কা মাগীবাজের হেল্প। মাথায় হঠাৎ করে চলে এল সেঞ্চুরি মিলনের কথা, এই হল সেই মিলন যিনি আমাদের ক্লাসে থাকা অবস্থায় ভীবীণ্ণ বয়সের নানান রকমের মেয়ে পটিয়ে সেঞ্চুরি করে আমাদেরকে নিয়ে ক্লাসে পার্টি করেছিল। আর বেশী চিন্তা না করে সেঞ্চুরি মিলন কে কল করলাম, সে কল রিসিব করেই বলল বন্ধু ১০ মিনিট পরে কল দে আমি ণাড়ীকার সাথে কথা বলছি। অপেক্ষার প্রায় ৭ মিনিট পর সেঞ্চুরি মিলন আমাকে কল করে বলল কিরে রবিন, জীবন টা নষ্ট করলি হাত মেরে মেরে এত দিন পর মণে পড়ল কি মতলবে। মিলনের কথা শূণে আমি লজ্জা পেয়ে গেলাম তারপরেও আমি বললাম দেখ বন্ধু একটা প্রব্লেমে আছি। সেঞ্চুরি মিলন বলল দেখ তাড়াতারি আসল কথা বল আমার হাতে বেশী সময় নেই। তারপর আমি আমার দুঃখের কথা মিলন কে বলার পর মিলন বলল, তিন বছর আগে তর ভাইয়ের বিয়েতে দেখেছিলাম তর ভাইয়ের একাটা সুন্দরি শালি ফারিয়া আছে সুনেছি সুন্দরি প্রতিজুগিতায় জুগ দিতে যাচ্ছে তুই সালা এই রকম একটা জিনিস রেখে থাকিস কি করে? আমি বললাম

Read More……….

Bangla Choti

কচি গুদে বয়স্ক ধোন

আফজাল সাহেব ধানমন্ডিতে ১৬ কাটা জমির উপর তাঁর ডুপ্লেক বাড়ী । বয়স ৬০ উধ্ব । আফজাল সাহেবের এক ছেলে এক মেয়ে দু জনই আমেরিকা প্রবাসী । কিন্তু আফজাল সাহেব মাটির টানে ও যান্তিকতায় বন্দী হতে চান নি বলে আমেরিকা যাননি। বিশাল বৃও বৈভব এর মাঝেও তাঁর জীবন বড়ই একাকী , আফজাল সাহেবের স্তী মারা গিয়েছেন বছর তিনেক আগে যদিও ছেলে মেয়েরা বাবার

দেখাশুনার জন্য ৪ জন কাজের লোক নিযোগ করেছে । তবুও তিনি বড় একা । একদিন সালমা নামের এক কাজের লোক বললো খালু জান আমার বিয়া ঠিক হইছে , আমি দ্যাশে যামু গা আমার বদলে আমার খালাতো বইন জুলেখারে দিয়া গেলাম ওই খুব ভালা আফনার যন্ত আত্তি করবো । আফজাল সাহেব কিছু টাকা দিয়ে সালমাকে বিদায় করেদিলেন ।রাতের খাবারের সময় আফজাল সাহেবের সাথে জুলেখার দেখা হলো।জুলেখার বয়স ১৪ কি ১৫ হবে । ড্যাব ড্যাব ড্যাব চোখঁ, মাই দুটো অত সুউচচ নয় । আফজাল সাহেব এক ঝলক চোখ বুলিয়ে বললেন , নাম কি তোর ? জুলেখার উওর জে জুলখা । বাড়ী কই ? জে কিশোরগন্জ । কয় ভাই বোন তোরা ? জে দুই বইন এক ভাই । এক বইনের

Read More Sexy Story

Bangla Choti

সে অনেক দিন আগের কথা

সে অনেক দিন আগের কথা, তখন আমি সবে বি়.এসসি. পাস করেছি়। চাকরির খুব চেষ্টা করছি, কিন্ত কিছুই পাচ্ছি না। খবরের কাগজের চাকরির বিঞ্জাপণ দেখে রোজই প্রায় আবেদন করি, কিন্ত কোন জবাব আসে না। এরকম করে দিন কেটে যাচ্ছিল, হঠাৎ একদিন এন্টালির একটা প্রাইভেট অফিস থেকে চাকরির ইন্টারভিউ কল এল। ১৯৮০-সালের গোড়ার দিকের কথা বলছি, তখন আমি দুর্গাপুরে থাকি। যাইহোক ইন্টারভিউ দিতে কলকাতায় চলে এলাম এবং যথাসময়ে এন্টালির অফিসে পৌঁছলাম। সৌভাগ্যক্রমে ইন্টারভিউটা বেশ ভালই হল আর আমি চাকরিটা পেয়ে গেলাম। চাকরি পাওয়ার পর আমি বাড়িতে খবরটা জানালাম; সবাই বেশ খুশিই হল। নভেম্বর মাসের গোড়ার দিকে আমি চাকরিতে জয়েন করলাম। এরপর আমার কাজ হল কলকাতায় একটা বাসস্হান খুঁজে বের করা; কেননা দুর্গাপুর থেকে তো আর রোজ কলকাতায় যাতায়াত করা যায় না। একদিন এক বন্ধুর সাহায্যে হাতিবাগানের দিকে একটা বাড়ি ভাড়া পাওয়া গেল। পুরানো আমলের দোতলা বাড়ি, বাড়ির মালিক দোতলায় থাকেন, আার আমি একতলাটা ভাড়া পেয়ে গেলাম। Read More Sexy Story

Bangla Choti

প্রেম প্রেম খেলা bangla choti

ঘড়ির কাটার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে এগারোটার পরে বাড়ি পৌছালাম।মা সন্দিহান চোখে দেখলেন।গম্ভীর মুখ করে ঘরে ঢুকে গেলাম।পোষাক বদলে হাফ-প্যাণ্ট পরে বাথরুমে গিয়ে চোখেমুখে জল দিয়ে বেরোচ্ছি মা জিজ্ঞেস করেন,কিরে খেতে দেবো? 12 more words

Bangla Choti